কম্পিউটারে হারানো ফোল্ডার খুঁজে বের করার উপায় জানুন।

 কম্পিউটার থেকে হারানো ফাইল খুঁজে বের করতে পারছেন না? হারানো ফাইল খুঁজে পাওয়ার উপায় খুজছেন? চিন্তা করবেন না। আজ আমি আপনাদেরকে খুব ভালো একটি search everything   সফটওয়্যার নিয়ে আলোচনা করা হলো। যেটা দিয়ে আপনি আপনার হার্ডডিস্ক থেকে খুব সহজে আপনার প্রয়োজনীয় ফাইলটি খুঁজে বের করতে পারে। অনেক সময় আমাদের অজান্তে গুরুত্বপূর্ণ ফাইল হারিয়ে যায়। হারানো ফাইল খুঁজে বের করার জন্য আমাদের এই আর্টিকেল।




সূচিপত্রঃ

উইন্ডোজ পিসিতে মুছে যাওয়া ফাইল ফিরিয়ে আনতে কি লাগবে
কোন মোড ব্যবহার করবেন
ডিফল্ট মোড এ উইন্ডোজ ফাইল ফিরিয়ে আনার উপায়
সেগমেন্ট উইন্ডোজ ফাইল রিকভার করার নিয়ম
সিগনেচার মোডে উইন্ডোজ ফাইল উদ্ধার করার নিয়ম
winfr এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা
search Everything সম্পর্কে কিছু কথা

উইন্ডোজ পিসিতে মুছে যাওয়া ফাইল ফিরিয়ে আনতে কি লাগবে

Windows file recovery to ব্যবহার করে মুছে যাওয়া ফাইল ফিরিয়ে আনতে হলে আমাদের কম্পিউটার উইন্ডোজ ১০ বিল ২০০৪ এর চেয়ে উপরের কোন ভার্সন ইনস্টল থাকতে হবে। এক্ষেত্রে উইন্ডোজ ১০ এর চেয়ে ২০২০ এর পরের কোন আপডেট ইনস্টল থাকা জরুরি।

উল্লেখ্য, microsoft এর ফাইল রিকভারি টু সফটওয়্যার টির কোন গ্রাফিক্যাল ইন্টারফেস নেই। এটি একটি কমান্ড লাইন ইউটিলিটি। অর্থাৎ কমার্স লাইন ইন্টারফেসর  (CMD)  তে এই ফাইল ফিরিয়ে আনার সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে।


মাইক্রোসফট ফাইল রিকভার টু কোন ডিলিট হওয়া প্রায় পুনরুদ্ধার করতে পারবে কিনা তা নির্ভর করছে ড্রাইভের ধরনের উপর। ডিলিট করে দেওয়া ফাইল হার্ডডিস্ক থেকে সাথে সাথে মুছে দেওয়া হয় না। তবে  এসএসডি কোন ফাইল ডিলিট করার পরে এটি ড্রাইভ থেকে চিরতরে মুছে ফেলা হয়।

উইন্ডোজ পিসিতে মুছে যাওয়া ফাইল উদ্ধার করব কিভাবে

এজন্য অনেক ধরনের টুল বা সফটওয়্যার আপনি পাবেন। তবে আজকের টিউটোরিয়াল এ আমরা মাইক্রোসফট এর অফিসিয়াল সফটওয়্যার ব্যবহার করে কম্পিউটারে ডিলিট হওয়া ফাইল ফিরে আনার পদ্ধতি দেখাবো।

এজন্য প্রথমে মাইক্রোসফট স্টোর থেকে উইন্ডোজ ফাইল রিকভারি  টুল ডাউনলোড করুন। of ডাউনলোড করুন। মাইক্রোসফট স্টোর ওপেন করে windows ফাইল রিকভারি লিখে সার্চ করলে পেয়ে যাবেন কাঙ্কিত সফটওয়্যারটি। ইন্সটল করার পর স্টার্ট মেনু থেকে উইন্ডোজ ফাইল রিকভারি খুঁজে নিন এবং অপশন থেকে Run As Administrator নির্বাচন করুন।

এরপর যে ড্রাইভ থেকে ডিলেটের ফাইল উদ্ধার করা হবে ,এবং সে ড্রাইভ সেভ করা হবে, তাWinfr কমান্ড এর মাধ্যমে নির্বাচন করতে হবে। কমান্ড টি রান করার পর রিকভার করা ফাইল সেভ হবে সেখানে রিকভারি ডেট এবং টাইম নামে একটি ফোল্ডার তৈরি হবে এই ফোল্ডারটি পুনরুদ্ধারকৃত ফাইল গুলো সেভ হবে।

কোন মোড ব্যবহার করবেন   


উইন্ডোস পিসিতে ডিলিট করা ফাইল রিকভার এর আগে আপনি কোন মোর ব্যবহার করবেন ফাইল উদ্ধার করবেন তার ঠিক করা জরুরী তিন ধরনের ফাইল রিকভারি মোড় রয়েছে ডিফল্ট সিগনেচার সেগমেন্ট। ডিফল্ট সবচেয়ে দ্রুত পদ্ধতি।সেট পদ্ধতি অনেকটা একই ধরনের কিছু প্রাধীর গতির।
সিগনেচার মরে ফাইল এর ধরনের উপর ফাইল চাষ করা হয় এটি ASF ,JPEG, MP3, MPEG, PDF, PNG, ZIP প্রকৃতি প্রভৃতি ফাইল সাপোর্ট করে। ZIP ফাইল সার্চ করলে অফিস ডকুমেন্টে যেমনDOCX, XLSX, PPTX এ পাওয়া যায়।

আপনি যে ফাইল স্ক্যান করবেন সেটি কোন ফাইলস সিস্টেম দ্বারা ফরমেট কে তো তা জানাও জরুরী। য যেটি  জানতে কোন ড্রাইভের Properties থেকেGeneral সেকশনে গেলেই জানতে পারবেন ড্রাইভ কি কোন ধরনের ফাই সিস্টেমে ফরমেটকৃত।  ফাইল সিস্টেমের উপর রিকভার মোড নির্বাচন করলে সুবিধা পাওয়া যায় যেমন:
ধরুন আপনার উইন্ডোজ ১০ এ NTFS ফাইভ সিস্টেম দ্বারা ফরমেট কিন্তু কোন ডাইস থেকে ফাইল উদ্ধার করার ক্ষেত্রে ডিফল্ট ব্যবহার করুন এছাড়াও NTFS থেকে কোন ফাইল ডিলিট করে ফরমেট করার পর যদি ওকে যৌবন নষ্ট হয়ে যায়, তবে এক্ষেত্রে প্রথমে সেগমেন্ট মোড এবং পরে সিগনেচার মোড ব্যবহার করা উত্তম।


আপনি যদি আপনার কম্পিউটার থেকে FAT exFAT কিংবাreFS ফাইল সিস্টেম দ্বারা প্রমাণিত কোনটাই থেকে সেই আগের ফাইলসমূহ পুনরুদ্ধার করতে চান, তবে আপনি সিগনেচার মোট ব্যবহার করতে পারেন। কেন ডিফল্ট এবং সিগমেন্ট মোড শুধুমাত্র NTFS ডায়েটের কাজ করে থাকে। আপনি যদি ড্রাইভের ফাইল সিস্টেম সম্পর্কে নিশ্চিত না হয়ে থাকেন তাহলে আপনি শুরুতে ডিফল্ট মোড এবং পরবর্তী বাকি দুইটি মোট ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

ডিফল্ট  মোডে উইন্ডোজ ফাইভ ফিরিয়ে আনার উপায় 

আপনি যদি ডিফল্ট মুড ব্যবহার করে ডিলিট কিছু ফাইল সমূহ উদ্ধার করতে চান তাহলে যে ফাইলে চার্জ করবেন তার পাশে লেটার এর পাশn যোগ করতে হবে। এর পরে আপনাকে ফাইল টেক্সট নামে কোন ফাইল খুজে বের করতে এন ফিল্ড এক্স লিখতে হবে। এছাড়াও আপনি যদি চান যে সম্পূর্ণ ফাইল প্যাথ লিখবেন সেটাও লিখে যান। যেমন USERS/JUSTIN/DOCUMENTS/FILE.TXT মনে করুন আপনিDocuments ফোল্ডারের ভেতর থাকা সব ফাইলস ক্যান করতে চান, সে ক্ষেত্রে USERS/JUSTIN/DOCUMENTS লিখতে হবে। আর txt এক্সটেনশন মুক্ত যুক্ত সকল ফাইল খুঁজে বের করতে লিখতে হবে/n/USERS/JUSTIN/DOCUMENTS/FILE.TXT. অর্থাৎ আপনার সেই ফাইল রিকভারি কমান্ডটি দেখতে অনেকটা এমন হবেঃWinfr C:D:/n txt

এখানে একটু ভালো করে খেয়াল করে দেখুন টেক্সট হচ্ছে সেই ফাইলটির ফরম্যাট। আপনি যদি কোন ওয়ার্ড ফাইল সমূহ উদ্ধার করতে চান, তাহলে ওয়ার্ডের ফরমেট যেমন docx লিখতে পারেন । কি বোর্ড থেকে ইন্টার দেওয়ার পর কার্ড চালিয়ে যে ওয়াই লিখে কনফার্ম করতে হবে। এখানে Y অর্থ হচ্ছেYES . তাছাড়া আপনি যদি কোন নির্দিষ্ট নামের সকল ফোল্ডার খুঁজে বের করতে চান তাহলে আপনাকে লিখতে হবে
Winfr C:D:/n project
আপনি চাইলে একই সাথে বিভিন্ন ধরনের ফাইল ও খুঁজে বের করতে পারবেন যেমন
Winfr C:D: /n docx /n xlsx /pptx

সেগমেন্ট মোভ windows file recover করার নিয়ম

আপনি চাইলে সেগমেন্ট মু ভ ব্যবহার করতে পারেন, কেননা সেগমেন্ট মোডটিও ডিফল্ট মোড়ের মত কাজ করে। তবে সিগনেট মোড় ের ক্ষেত্রে এখানে শুধুমাত্র n এর পরিবর্তে r ব্যবহৃত হয়। মনে করুন আপনি আপনার কম্পিউটার থেকে ডিলিট হওয়ার সকল mp3 ফাইল সিগন্যান্ট মোড়ের দ্বারা রিকভার করতে চান এক্ষেত্রে আপনাকে কিবোর্ড থেকে টাইপ করতে হবে:

Winfr C:D:/r/n/.mp3

সিগনেচার মোড উদ্ধার করার নিয়মঃ

ওপরে দুইটি মোড থেকে সিগনেচার মোড এর কার্যপ্রণালী সমূহ কিছুটা ভিন্নধর্মী। এর সিগনেচার মোট কিছু নির্দিষ্ট ধরনের ফাইল খুঁজে পেতে অধিক কার্যকর একটি মাধ্যম।/X ের দ্বারা সিগনেচার মোর এবং/Y এর দ্বারা ফাইল টাইপ কিংবা গ্রুপে নির্দিষ্ট করা হয়। আপনাদের সুবিধার জন্য মাইক্রোসফট এর ডকুমেন্ট অনুসারে ফাইল টাইপ এবং নিচে দেওয়া হলঃ 

  • ASF:WMA,WMV,asf
  • JPED:jpg,jpeg,jpe,jif,jfif,jfl
  • MP3:mp3
  • MPEG: mpeg ,mp4,mpg,m4a,m4v,m4b,m4r,mov,3gp,qt
  • PDF: pdf
  • PNG: png
  • ZIP:zip,docx,xlsx,pptx,odt,ods,odp,odg,odi,odf,odc,odm,ott,otg,otp,ots,otc,oti,otf

এ তালিকাটি আপনি যেকোনো সময় নিম্নে লিখিত কমান্ড ব্যবহার করে দেখতে পারবেন:

winfr/#


আপনি ড্রাইভই থেকে একটি জিপিজি করতে চাচ্ছেন তাহলে কমেন্ট লিখতে হবে

winfr E:D:/x/y:JPEG

এছাড়াও আপনি যদি মনে করেন যে একাধিক ফাইল গ্রুপে এড করবেন তাহলে আপনি চাইলে সেটি করতে পারেন অনায়াসে। যেমনঃ

Winfr E;D;/x/y:JPEG,PDF,ZIP

সার্চ এভরিথিং সম্পর্কে কিছু কথা

সফটওয়্যারটি মাত্র কয়েক কিলোবাইট (334 kb)
ইন্সটল পদ্ধতি খুব সোজা।
সার্চ করতে অনেক কম সময় লাগে।
চার্জ করা ফাইলটি ওইখান থেকে ও এক্সেস করা যায় অথবা
 ফোল্ডার ওপেন  করেও করা যায়।
চার্জের আবার অনেকগুলো ক্যাটাগরিও রয়েছে ।
তাই এটি ব্যবহার করা খুব সহজ।

আশা করি এই পোস্টটা আপনারা পড়লে কিছুটা হলেও উপকৃত হবেন। এখানে আপনারা জানতে পারবেন কম্পিউটারের হারানো ফোল্ডার খুঁজে বের করার উপায়। এই আর্টিকেলে যেভাবে বলা হয়েছে ঠিক সেভাবে কাজ করলে হারানো ফোল্ডার খুঁজে পাওয়া যাবে। আশা করি আর্টিকেলটি সম্পর্কে আপনাদের কিছুটা হলেও ধারণা হয়েছে।


Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url